টাকা আত্মসাতের অভিযোগ: পলাশে অধ্যক্ষের অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন

১৫ জুলাই ২০২০, ০৩:২৯ পিএম | আপডেট: ১১ আগস্ট ২০২০, ০২:৫৬ এএম


টাকা আত্মসাতের অভিযোগ: পলাশে অধ্যক্ষের অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন

পলাশ প্রতিনিধি:
নরসিংদীর পলাশে এতিমখানার বিভিন্ন আয়-ব্যয়ে ভূয়া ভাউচার ও হিসাব বিবরণী দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আ.ক.ম রেজাউল করীমের অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। রেজাউল করীম উপজেলার ইছাখালী দারুল মাছাকীন ইসলামিয়া এতিমখানার কার্যকরী কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও ইছাখালী ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ।

বুধবার (১৫ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে এতিমখানা কার্যকারী কমিটির একাংশ ও গ্রামবাসীর যৌথ উদ্যোগে এতিমখানার সামনে অধ্যক্ষ আ.ক.ম রেজাউল করীমের অপসারণ চেয়ে ও শাস্তির দাবিতে এই মানববন্ধন পালন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এতিমখানা পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আ.ক.ম রেজাউল করীম বিভিন্ন অপ-কৌশলে এতিমখানার নামে-বেনামে দোকান ঘর নির্মাণে অনিয়মের মাধ্যমে প্রায় ২ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে। তাছাড়া এতিমখানার সোনালী ব্যাংক পলাশ শাখা থেকে সরকারি বরাদ্দের ২ লাখ ৪১ হাজার টাকা উত্তেলন করে সেখান থেকেও ৪১ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে।
এছাড়াও ইছাখালী ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার বিভিন্ন দোকান ভাড়া দেওয়ার কথা বলে নামে-বেনামে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মসাৎ করেছে অধ্যক্ষ রেজাউল করীম। ইতিপূর্বেও রেজাউল করীমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠার পরেও কোনো বিচার হয়নি। তাই এবার অধ্যক্ষ আ.ক.ম রেজাউল করীমের অপসারণ ও অনিয়মের সুষ্ঠ তদন্ত দাবি করেন বক্তারা।
এ সময় বক্তব্য রাখেন, এতিমখানা পরিচালনা কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, এতিমখানা কমিটির সদস্য ও মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম শিকদার ও আওয়ামীলীগ নেতা কামাল হোসেনসহ স্থানীয়রা।


উল্লেখ, ইতোমধ্যে এতিমখানার সভাপতি সোহরাব হোসেন ও কার্যকারী সদস্য রহিম পাঠান অধ্যক্ষ রেজাউল করীমের অনিয়মের বিরুদ্ধে ও টাকা আত্মসাতের ঘটনায় পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয় বরাবর দায়ের করেন। যা তদন্তাধীন রয়েছে।