পলাশে সৎ পিতার অসৎ কর্ম

২৪ জুন ২০২০, ০৬:০৫ পিএম | আপডেট: ১১ আগস্ট ২০২০, ০৫:১২ পিএম


পলাশে সৎ পিতার অসৎ কর্ম

পলাশ প্রতিনিধি:
নরসিংদীর পলাশ উপজেলায় সৎ পিতা কর্তৃক ১২ বছরের এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শিশু কন্যার মা বাদি হয়ে বুধবার (২৪ জুন) বিকালে পলাশ থানায় একটি ধর্ষণের মামলা করেন।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে পলাশ উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের নোয়াকান্দা গ্রামে নিজ বাড়িতে শিশু কন্যাকে ধর্ষণ করে সৎ পিতা সাদ্দাম কাজী (৩০)। এ ঘটনার পর থেকে সাদ্দাম কাজী পলাতক রয়েছে। অভিযুক্ত সাদ্দাম কাজী নোয়াকান্দার হোসেন কাজীর ছেলে।


শিশু কন্যার মা জানান, প্রথম স্বামী মারা যাওয়ার পর ৮ বছর আগে ওই শিশু কন্যাকে নিয়ে সাদ্দাম কাজীর কাছে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। এরমধ্যে তাদের একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। অভাব অনটনের সংসার হওয়ায় স্বামী-স্ত্রী নরসিংদীতে একটি গার্মেন্টসে চাকুরি নেয়। গত কয়েক মাস ধরে তার স্বামী চাকুরি ছেড়ে বাড়িতে অবস্থান করতে থাকে। এর মধ্যে মেয়েকে রেখে মা কাজে চলে গেলে সৎ বাবা সাদ্দাম কাজী প্রায় সময় মেয়েকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। বিষয়টি শশুর শাশুরিকে অবগত করেও কোন সুরাহা মেলেনি। সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে শিশু কন্যার মা গার্মেন্টসে গেলে একা ঘরে মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে সৎ বাবা সাদ্দাম কাজী। পরে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে পালিয়ে যায় সাদ্দাম কাজী।


এ ব্যাপারে পলাশ থানার ওসি শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত সাদ্দাম কাজীকে আটকে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।