পাঁচদোনায় কেয়ারটেকারকে আহত করে প্রবাসীর বাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

২৯ মে ২০২৩, ০৪:৪০ পিএম | আপডেট: ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪০ এএম


পাঁচদোনায় কেয়ারটেকারকে আহত করে প্রবাসীর বাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নরসিংদীর পাঁচদোনায় এক ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে কেয়ারটেকারকে মারধর করে জোরপূর্বক প্রবাসীর বাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। রোববার (২৮) মে সকালে নরসিংদী সদর উপজেলার পাঁচদোনা ইউনিয়নের কাকুশিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় আহত কেয়ারটেকার সদর উপজেলার নেহাব গ্রামের মৃত রমিজদ্দিনের পুত্র মোঃ ফারুক মিয়া (৫০) অভিযুক্ত পাঁচদোনা ইউপি’র ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার ওসমান মিয়ার বিরুদ্ধে মাধবদী থানায় অভিযোগ করেছেন।   

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, মোঃ ফারুক মিয়া কাকুশিয়া গ্রামের হাজী কুদ্দুস আলীর বড় ছেলে প্রবাসী মোঃ মোবারক হোসেনের বাড়িতে কেয়ারটেকার হিসেবে দীর্ঘদিন চাকরি করে আসছেন। পারিবারিকভাবে বড় ভাই প্রবাসী বাড়ির মালিক মোবারকের সাথে সম্পর্কের অবনতি চলছিল ছোট ভাই পাঁচদোনা ইউপি’র ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার মো: ওসমান মিয়ার। এই জেরে মেম্বার ওসমান মিয়া (৪৮) প্রায়ই কেয়ারটেকার ফারুককে মোবারক হোসেনের বাড়ীর চাবি দেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। জোরপূর্বক বাড়ি দখল করার আশংকায় বাড়ি মালিকের নির্দেশে চাবি দিচ্ছিলেন না কেয়ারটেকার ফারুক মিয়া।

রোববার সকালে চাবি চেয়ে না পেয়ে কাঠ দিয়ে কেয়ারটেকার ফারুক মিয়াকে পিটিয়ে আহত করে বাড়ির ও বাড়ির ভেতরের লকারের চাবি ছিনিয়ে নেয় মেম্বার ওসমান মিয়া। এসময় ফারুকের ডাকচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে ওসমান মিয়া তাকে  প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়।

প্রতিবেশীরা আহত ফারুককে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে  মাধবদী থানায় অভিযোগ  করেন কেয়ারটেকার ফারুক মিয়া।

অভিযুক্ত ওসমান মিয়া কেয়ারটেকার ফারুককে মারধর ও চাবি ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মাধবদী থানার ডিউটি অফিসার এ.এস.আই লুবনা জানান, ফারুক মিয়া নামে এক ব্যক্তি ওসমান মিয়া নামক একজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। তবে অভিযোগটি তদন্ত করার জন্য পাঁচদোনা পুলিশ ফাঁড়িকে দেয়া হয়েছে।

পাঁচদোনা পুলিশ ফাঁড়ির ইনর্চাজ এস.আই ইউসুফ জানান, অভিযোগটি এখনও আমার কাছে আসেনি। অভিযোগটি হাতে পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।



এই বিভাগের আরও