শিবপুরে অস্ত্রসহ আন্ত:জেলা ডাকাত চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার, গরু চুরির কথা স্বীকার

২৭ মার্চ ২০২৩, ০৪:১৩ পিএম | আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৩২ পিএম


শিবপুরে অস্ত্রসহ আন্ত:জেলা ডাকাত চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার, গরু চুরির কথা স্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নরসিংদীতে ৫ গরু চুরির ঘটনায় জড়িত আন্ত:জেলা ডাকাত চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। সোমবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধূরী।

এর আগে রোববার দিবাগত রাতে শিবপুর থানার মুন্সেফেরচর-চরসিন্দুর সড়কের কাঠালতলা মোড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের দখল থেকে ১টি একনালা বন্দুক, ১টি ওয়ান সুটার গান, ২ রাউন্ড কার্তুজ, ২টি কাটার, ১টি পিকআপ গাড়ী, ২টি লোহার পাইপ, ১টি লোহার তৈরি বিশেষ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- শিবপুর থানার উত্তর সাধারচর এলাকার মোঃ মাসুদ মিয়া (৩৩), খড়কমারা এলাকার মোঃ অহিদুল্লাহ ভূঁইয়া (২৫), বেলাব থানার পশ্চিম পোড়াদিয়ার বিল্লাল হোসেন (৪৮), নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দার সিংপুর এলাকার হোসেন আলী (৫১) ও নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানার কাইনালীভিটার এছাক মিয়া (৬০)। গ্রেপ্তারকৃত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ৩ থেকে ১৬টি পর্যন্ত ডাকাতি ও চুরির মামলা আদালতে বিচারাধীন।

পুলিশ জানায়, গত বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) ভোর রাতে শিবপুরের কুমরাদী এলাকার দুই ব্যক্তির বাড়ির গোয়াল ঘরের তালা ভেঙে ৫টি গরু চুরি হয়। এই ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার নির্দেশ দেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম। নির্দেশনার পর জেলা গোয়েন্দা শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবুল বাসারের নেতৃত্বে জড়িতদের ধরতে অভিযান শুরু করে গোয়েন্দা শাখার একটি দল। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ডাকাতির প্রস্তুতির সময় শিবপুরের কাঠালতলা মোড় এলাকা থেকে অস্ত্রসহ ডাকাত চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধূরী নরসিংদী টাইমসকে বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে দুই বাড়ি হতে ৫টি গরু চুরির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। চুরি করা গরুগুলো পিকআপে করে নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার হোসেন আলী ও এছাক মিয়ার নিকট বিক্রি করে বলে জানায় তারা। গরুগুলো উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। গ্রেপ্তারকৃতরা নিয়মিতভাবে নরসিংদীসহ বিভিন্ন অঞ্চলে গরু চুরি করে নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লার বিভিন্ন গরুর হাটে নিয়ে বিক্রি করে থাকে। তাদের বিরুদ্ধে চুরি, ডাকাতসহ বিভিন্ন অপরাধে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।  



এই বিভাগের আরও