রায়পুরায় গৃহবধূ ধর্ষণ চেষ্টার মামলার আসামী গ্রেপ্তার

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:২৫ পিএম | আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৮:২০ পিএম


রায়পুরায় গৃহবধূ ধর্ষণ চেষ্টার মামলার আসামী গ্রেপ্তার

রায়পুরা প্রতিনিধি:

নরসিংদীর রায়পুরায় এক গৃহবধুকে ধর্ষণের চেষ্টা মামলায় ইকবাল (৩৫) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। রোববার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে শনিবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার সময় মুছাপুর ইউনিয়নে এই ধর্ষণের চেষ্টার  ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তারকৃত ইকবাল উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের পূর্বহরিপুর পাহাড় কান্দি গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানান, ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূর স্বামী ঘটনার রাতে রিকশা চালাতে বাড়ির বাইরে ছিলেন। ঘরে ওই গৃহবধূকে একা পেয়ে কৌশলে ঘরে প্রবেশ করে ইকবাল। এসময় গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করে পালিয়ে যায়। পরে স্বামী বাড়ি ফিরে আসলে এ ঘটনার বর্ণনা দেন স্ত্রী। ওই রাতেই তার স্বামী ঘটনাটি স্বজনদের জানান। পরদিন শনিবার সকালে স্থানীয়দের জানালে শালিসী দরবারে ঘটনাটি মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। পরে ভুক্তভোগী পরিবার শনিবার বিকেলে রায়পুরা থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। অভিযোগ পেয়ে থানার উপপরিদর্শক রাকিবুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযুক্ত ইকবালকে গ্রেপ্তার করে। পরে রোববার তাকে আদালতে পাঠানো হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়।

ভুক্তভোগীর স্বামী জানান, ইতিপূর্বেও ইকবাল আমার স্ত্রীকে কুপ্রস্তাবসহ উত্যক্ত করে আসছিলো। বিষয়টি অনেককেই জানিয়েছি। আমি তার শাস্তি দাবি করছি।

অভিযুক্তের মা বলেন, ওই মহিলার স্বামীর অন্য মেয়ের সাথে সম্পর্ক রয়েছে। ওই বউকে সুকৌশলে তাড়িয়ে দিয়ে ওই মেয়েকে বিয়ে করার পায়তারা করছে। এজন্য নির্দোষ ছেলেকে এ ঘটনায় ফাঁসানো হয়েছে।

অভিযুক্তের স্ত্রী মেহেরা বলেন, ওইদিন রাতে আমার স্বামী সারাক্ষণ আমার সাথেই ছিলো। এমন কিছু ঘটে থাকলে রাতেই জানতে পারতাম, পরে কেনো বলাবলি করছে।

রায়পুরা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোবিন্দ সরকার বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর এলাকা থেকে অভিযুক্ত ইকবালকে আটক করা হয়। রোববার এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পরে অভিযুক্তকে বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হলে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।