পলাশে ছাত্রলীগ নেতাকে চাঁদা না দেয়ায় বাড়ি-ঘরে হামলা, গ্রেফতার ২

২৭ জুন ২০২০, ০৬:০৫ পিএম | আপডেট: ১১ আগস্ট ২০২০, ০৯:৫৫ পিএম


পলাশে ছাত্রলীগ নেতাকে চাঁদা না দেয়ায় বাড়ি-ঘরে হামলা, গ্রেফতার ২

পলাশ প্রতিনিধি:

নরসিংদীর পলাশে মাহবুবুর রহমান নামে স্থানীয় এক ব্যবসায়ীর কাছে দেড় লাখ টাকা চাঁদা দাবি করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে। ওই ছাত্রলীগ নেতার দাবিকৃত দেড় লাখ টাকা চাঁদা না দেওয়ায় ব্যবসায়ীর বাড়ি ঘরে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

অতঃপর ৯৯৯ কল দিয়ে রক্ষা পায় ওই ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান। এ ঘটনায় জহিরুল হক সরকার (৩০) ও নাহিদ মিয়া (২৪) নামে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় হামলাকারীদের ফেলে যাওয়া তিনটি মোটরসাইকেল জব্দ করে পুলিশ।

শুক্রবার (২৬ জুন) রাতে উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পশ্চিম বালিয়া পাড়া গ্রামের ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার নাম রানা ভূইয়া। তিনি চরসিন্দুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্বরত রয়েছেন।

ভুক্তভোগি ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান জানান, দীর্ঘদিন ধরেই ছাত্রলীগ নেতা রানা ভূইয়া বিভিন্নভাবে টাকা দাবি করে আসছে। সর্বশেষ গত এক সপ্তাহ আগে দেড় লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে সে। তাদের দাবিকৃত দেড় লাখ টাকা চাঁদা না দিলে এলাকায় ব্যবসা করতে দিবে না বলেও প্রাণনাশের হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে। তিনি বলেন, কিন্তু আমি তাদের দাবিকৃত চাঁদার দেড় লাখ টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানাই।

এরপরই ছাত্রলীগ নেতা রানা ভূইয়ার নেতৃত্বে ১০ থেকে ১৫ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমার বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় আমি নিজেকে ও পরিবারকে রক্ষার্থে দ্রুত ৯৯৯ কল দেই। পরে থানা পুলিশ এসে আমাদেরকে রক্ষা করে। এসময় পুলিশ হামলাকারীদের মধ্যে থেকে জহিরুল হক সরকার নামে এক জনকে গ্রেফতার করে ও তিনটি মোটরসাইকেল জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা রানা ভূইয়ার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, চাঁদা দাবি ও হামলার ঘটনার সাথে কোনোভাবেই আমি ও আমার লোকজন জড়িত নয়। আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। 

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় রানা ভূইয়াকে সহ ৬/৭ জনকে আসামী করে এবং আরও ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় একটি মামলা হয়েছে। এঘটনায় জড়িত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের  গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।