হরতাল শেষে বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

০২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৮:০১ পিএম | আপডেট: ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩০ এএম


হরতাল শেষে বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা
ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) দিনব্যাপী রাজধানীতে হরতালের ডাক দেয় বিএনপি। এরই মধ্যে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি। রোববার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকা শহরে থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।

জনগণ হরতাল সফল করেছে দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে হরতাল পালন করেছে, আমরা তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। কিছুক্ষণের মধ্যে আমাদের আহ্বানে সকাল-সন্ধ্যার যে হরতাল তা শেষ হতে যাচ্ছে। এই হরতাল আমরা আহ্বান করেছিলাম গতকাল (শনিবার) ঢাকা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে যে প্রহসন করা হয়েছে, তামাশা করা হয়েছে তার প্রতিবাদে, নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে। আমরা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ফলাফল বাতিল, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আগামী পরশু ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগরের থানায় থানায় বিক্ষোভ-সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করছি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে ভোট কারচুপি, জালিয়াতি, ত্রাস সৃষ্টি, এজেন্টদের বের করে দেওয়া, ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ নানা ঘটনার তথ্য-প্রমাণ মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে তুলে ধরবেন ধানের শীষের দুই প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেন।

হরতালের সমর্থনে ঢাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে নেতাকর্মীরা পিকেটিং করার সময় ৩/৪ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে উল্লেখ করে তাদের মুক্তির দাবিও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন, উত্তরের মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে হরতালের সমর্থনে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থানরত দলটির নেতা-কর্মীদের সরে যেতে ৩০ মিনিটের আলটিমেটাম দেয় পুলিশ। পুলিশের দেওয়া আল্টিমেটামের মাত্র ৩ মিনিটের মধ্যেই তারা রাস্তা ছেড়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চলে যান।

এছাড়া কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের ফুটপাতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে দলটির শতাধিক নেতাকর্মী রোববার সকাল থেকে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছিলেন। বেলা ১১টা ৫০ মিনিটের দিকে বিএনপি নেতাকর্মীদের আধা ঘণ্টার মধ্যে সেখান থেকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেন ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের পল্টন জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (এসি) জাহিদুল ইসলাম। তখন রিজভী পুলিশের কাছ থেকে ১০ মিনিট সময় চেয়ে নেন। কিন্তু ৭ মিনিটের মধ্যেই দুপুরে খাবার ও নামাজের কথা বলে কর্মসূচি শেষ করেন তিনি। রিজভীর এমন আচরণে দলের নেতাকর্মী, উপস্থিত পুলিশ ও সাংবাদিকদের মধ্যে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়।

এর আগে সকাল সোয়া ১১টার দিকে নেতাকর্মীদের নিয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আসেন ঢাকা দক্ষিণে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। সেখানে এসেই ‘চোর চোর ভোট চোর, শেখ হাসিনা ভোট চোর/প্রহসনের নির্বাচন মানি না মানবো না’ স্লোগান দিতে থাকেন তিনি।

এর আগে শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টার দিকে নয়া পল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই হরতালের ডাক দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এতে পুরোপুরি সমর্থন জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।


বিভাগ : বাংলাদেশ


এই বিভাগের আরও