যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় নার্সকে কুপিয়ে হত্যা

২৭ জুন ২০১৯, ০৬:৪৪ পিএম | আপডেট: ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৭ এএম


যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় নার্সকে কুপিয়ে হত্যা
তানজিনা ও অভিযুক্ত জীবন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় ভানজিনা আক্তার (২০) নামে হাসপাতালের এক নার্স (সেবিকা)কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি।এর আগে গত ২০ জুন সকালে তাকে কুপিয়ে আহত করা হয়।

তানজিনা ঠাকুরগাঁওয়ের গ্রামীণ চক্ষু হাসপাতালের সেবিকা ছিলেন।তার বাড়ি সদর উপজেলার সালন্দর ইউনিয়নের মাদ্রাসাপাড়ায়।

জানা গেছে, গত ২০ জুন সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে কর্মস্থল চক্ষু হাসপাতালে যাচ্ছিলেন তানজিনা। এসময় জীবন নামে স্থানীয় এক বখাটে তার পেছন থেকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে পিঠে, বুকে, ও হাতে এলোপাথাড়ি কোঁপায়। এরপর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে পরদিন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে।

তানজিনার বাবা হামিদ আলী অভিযোগ করে বলেন, বখাটে জীবন প্রতিদিন এলাকার বিভিন্ন মেয়েদের উক্ত্যক্ত করতো। ভুক্তভোগী স্কুলগামী ছাত্রীরা আমার মেয়েকে এ বিষয়ে অভিযোগ দেয়। এরপর আমার মেয়ে জীবনকে শাসন করে। এরই জের ধরে জীবন আমার মেয়েকে ছুরিকাঘাত করে।

ঠাকুরগাঁও থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, তানজিনাকে ছরিকাঘাত করার ঘটনার দিনেই তার বাবা আব্দুল হামিদ মামলা দায়ের করেছিলেন। অভিযুক্ত জীবনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


বিভাগ : বাংলাদেশ