সাংবাদিকের বৈচিত্র্যময় জীবনে আনন্দের চেয়ে বেদনার মুহূর্ত প্রবল: গণপূর্ত মন্ত্রী

০৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৪১ পিএম | আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:৫৮ পিএম


সাংবাদিকের বৈচিত্র্যময় জীবনে আনন্দের চেয়ে বেদনার মুহূর্ত প্রবল: গণপূর্ত মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, এমপি বলেছেন, “একজন ভালো সাংবাদিকের কোনো বন্ধু থাকে না। সাংবাদিকদের সৃষ্টি তাদের অমরত্ব দিতে পারে। তারা কঠিনকে ভালোবাসেন। তাদের বৈচিত্র্যময় জীবনে আনন্দের চেয়ে বেদনার মুহূর্ত প্রবল। তাদের অনবদ্য সৃষ্টি অনেক সময় অনুপ্রেরণা ও উৎসাহ দেয় এবং ভবিষ্যতে চলার পথ নির্দেশ করে।”

বৃহস্পতিবার (০৭ নভেম্বর) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের আয়োজনে ‘রূপসী বাংলা’ শীর্ষক জাতীয় ফটো প্রদর্শনী ও প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, “সাংবাদিকগণ অনেক সময় প্রয়োজনীয় বেতন-ভাতা পান না বলে অত্যন্ত কষ্টদায়ক জীবনযাপন করেন। তাদের কাজে আমরা কেউ সন্তুষ্ট থাকি না। এ জন্য সাংবাদিকতাকে বলা হয় থ্যাংকসলেস জব। প্রশংসাসূচক সংবাদ হলে আমরা খুব খুশি হই, কিন্তু অনিয়ম-দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনার সংবাদ হলে আমরা খুশি হতে পারি না। অনেক সময় মালিকপক্ষের বিজাতীয় আচরণ সাংবাদিকদের সইতে হয়। তাদের স্বকীয়তা বিকাশের জায়গা সীমাবদ্ধ হয়ে যায়। তবে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, অনলাইন গণমাধ্যম সাংবাদিকদের বিকাশের ক্ষেত্র হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে”।

মন্ত্রী আরো বলেন, “ফটো সাংবাদিকদের কর্মক্ষেত্রে অনেক সময় ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয়। তবুও নৈপূণ্য ও শৈল্পিকতা দিয়ে ‍নির্মল ও নির্ভেজালভাবে ফটো সাংবাদিকগণ তথ্য উপস্থাপন করেন যা অনেকক্ষেত্রে রিপোর্টারগণও পারেন না।”

শ ম রেজাউল করিম বলেন, “আমি সবসময় আহ্বান জানাই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ হোক। প্রয়োজনে আমার ত্রুটি তুলে ধরুন, তবে আমাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে হবে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে আমরা যে পদক্ষেপ নিয়েছি এবং নিচ্ছি সেটা সাংবাদিকদের তুলে ধরতে হবে। না হলে আমরা উৎসাহ পাবো না।”

সাংবাদিকদের প্রধান অতিথি আহ্বান জানান, “অনিয়ম করে হঠাৎ করে উত্থান হওয়া ব্যক্তিদের সামনে নিয়ে আসুন। মানুষ যেনো তাদের ঘৃণা করতে পারে। এসব জায়গায় আমাদের সকলের সোচ্চার হওয়া দরকার। কিছু সাদা পোশাকধারী রাজনীতিক ও অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ ব্যক্তি দেশের এতো উন্নয়নের মাঝে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি সৃষ্টি করছেন। তাদের চিত্র প্রতিবিম্বের মতো আপনাদের তুলে ধরতে হবে।”

বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম এবং বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা মোহাম্মদ এনায়েত করিম। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কাজল হাজরা।

অনুষ্ঠানে ০৮জন পুরস্কার প্রাপ্ত ফটোজার্নালিস্টের হাতে ক্রেস্ট ও সনদপত্র তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী।


বিভাগ : বাংলাদেশ


Regent