একই বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান ও অবসরজনিত বিদায়

০৮ আগস্ট ২০২২, ০৮:০৬ পিএম | আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:০৮ পিএম


একই বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান ও অবসরজনিত বিদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক:

একই বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান ও একই বিদ্যালয় থেকে ২৮ বছর শিক্ষকতা শেষে অবসরজনিত বিদায় নিয়েছেন নরসিংদীর বেলাব উপজেলার বারৈচা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাবেয়া খাতুন শান্তি। সোমবার (৮ আগস্ট) ছিল তার শিক্ষক জীবনের শেষ কর্ম দিবস। তার বিদায় উপলক্ষে উপজেলা সহকারী শিক্ষকদের পক্ষ থেকে ঘরোয়া সংবর্ধনা জ্ঞাপন করা হয়। এছাড়া পৃথকভাবে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান তাকে বিদায়জনিত অশ্রুসিক্ত শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।

এই শিক্ষকের বর্ণাঢ্য প্রতিবাদী কন্ঠ, বলিষ্ঠ নেতৃত্ব, সৎ ও নিষ্ঠাবান জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, বেলাব উপজেলা সহকারী শিক্ষক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রাশেদুল ইসলাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ফজলুল হক, দপ্তর সম্পাদক মোঃ আব্দুল্লাহ, সহ সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোমেন মিয়া, আমতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজনীন হক হেনা প্রমুখ।

তাঁর শেষ কর্ম দিবসে সোমবার সকাল থেকেই প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আবেগঘন পদচারনায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গন হয়ে উঠে ভারাক্রান্ত। প্রিয় শিক্ষকের বিদায়ে বর্তমান শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের চোখ হয়ে উঠে অশ্রুসিক্ত।

বেলাব উপজেলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি রাবেয়া খাতুন শান্তি শুধু একজন শিক্ষকই নন, একাধারে তিনি একজন সমাজসেবী, প্রতিবাদী নারী নেত্রী, অসহায় ও নির্যাতিত নারীদের আশ্রয়স্থল হিসেবে খ্যাতি লাভ করেছেন। শিক্ষার পাশাপাশি তাঁর সামাজিক সাংস্কৃতিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের জন্য এতদাঞ্চলের সকল শ্রেণিপেশার মানুষের প্রিয়ভাজন হয়ে উঠেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষকতার পাশাপাশি বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের স্থানীয় ও কেন্দ্রিয় নেতৃত্বে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। সকল প্রকার সামাজিক অনাচার ও নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছেন রাবেয়া খাতুন শান্তি।

উল্লেখ, ১৯৮৩ সালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন রাবেয়া খাতুন শান্তি। ১৯৯৪ সালে তিনি বারৈচা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন।



এই বিভাগের আরও