নতুন ধরনের মাদক ক্রিস্টাল ম্যাথ : বাংলাদেশের মাদক বাজার ধরার চেষ্টা

২৯ জুন ২০১৯, ১২:৩৬ পিএম | আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১৪ এএম


নতুন ধরনের মাদক ক্রিস্টাল ম্যাথ : বাংলাদেশের মাদক বাজার ধরার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ইয়াবার চেয়ে শতগুণ শক্তিশালী নতুন ধরনের মাদক আইসসহ (ক্রিস্টাল ম্যাথ) নাইজেরিয়ার এক নাগরিককে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকা থেকে গত বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) তাকে আটক করা হয়। গতকাল (২৮ জুন) শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক মো. মোসাদ্দেক হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি জানান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ঢাকার গোয়েন্দা দল ফাঁদ পেতে রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানের বিপরীত দিকে এয়ারপোর্ট রোড থেকে আজাহ আনায়োচুকাওয়া ওনেয়ানুশি (৩৮) নামের নাইজেরিয়ার ওই নাগরিককে আটক করে। নতুন মাদক আইস এর জন্য বাংলাদেশের মাদক বাজার ধরার জন্য আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের মাদক ব্যবসায়ীরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এমন এক সংবাদের ভিত্তিতে এ ফাঁদ পাতা হয়। এই নাইজেরীয় ব্যক্তি পালানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। তার প্যান্টের পকেট থেকে ৫০ গ্রাম ক্রিস্টাল ম্যাথ, যা বাজারে আইস নামে পরিচিত ও একটি মোবাইল জব্দ করা হয়। পরে রাতেই বসুন্ধরা এলাকার তার বাসায় অভিযান চালিয়ে ৪৭২ গ্রাম ক্রিস্টাল ম্যাথ জব্দ করা হয়। 

জিজ্ঞাসাবাদে আজাহ জানান, সে ঢাকার আশা ইউনিভার্সিটির ফার্মেসি বিভাগ থেকে স্নাতক পাস করে ঢাকাতেই পোশাকশিল্পের ব্যবসা শুরু করে। তার পরিবার নাইজেরিয়াতে থাকে। আজাহ নিষিদ্ধ ডার্ক নেটের সদস্য হয়ে পোশাকশিল্প ব্যবসার আড়ালে মাদকের ব্যবসা শুরু করে।

এ সময়  সে ব্যাংকক, মালয়েশিয়া, ভারত, উগান্ডা, কেনিয়া যাতায়াত করত। ইয়াবার চেয়ে শতগুণ শক্তিশালী ক্রিস্টাল ম্যাথ আফ্রিকা থেকে এনে এসব দেশগুলোতে পাচার করত। পরে বাংলাদেশে এই মাদককে মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে পরিচিত করার জন্য দাম কমিয়ে বিক্রি শুরু করে সে। প্রায় ছয় দিন আগে তার কাছে উগান্ডা থেকে ডিএইচএল কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে আইস নামের মাদকের পার্সেল পাঠানো হয়। তার মা মারা যাওয়ায় সে দ্রুত তা বিক্রি করে নাইজেরিয়াতে ফিরতে চেয়েছিল।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর জানায়, মালয়েশিয়ায় যেখানে ১ গ্রাম আইসের দাম ১৫ হাজার রিঙ্গিত (তিন লাখ টাকার বেশি), সেখানে ঢাকায় ৭ থেকে ১০ হাজার টাকায় আইস বিক্রি করছিল। জিজ্ঞাসাবাদে এই নাইজেরিয়ান নাগরিক জানিয়েছে, ৫/৬ দিন আগে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে উগান্ডা থেকে মাদকের ওই চালান তার কাছে আসে। 

গত ফেব্রুয়ারিতে রাজধানীর জিগাতলার এক বাসায় আইস তৈরির কারখানার সন্ধান পায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। হাসিব মোহাম্মদ মুয়াম্মার রশিদ নামের এক যুবক মালয়েশিয়ায় পড়তে গিয়ে ক্রিস্টাল ম্যাথ বানানো শেখেন এবং দেশে ফিরে গবেষণাগারের আদলে ওই কারখানা গড়ে  তোলেন। ওই কারখানা থেকে সে সময় ক্রিস্টাল ম্যাথের পাশাপাশি ইয়াবা তৈরির উপকরণ মিথাইল অ্যামফিটামিন, ক্রিস্টাল মিথাইল অ্যামফিটামিন, এমডিএমএ তৈরির উপকরণ মিথাইল ডাই অক্সিম্যাথা অ্যামফিটামিনসহ ১৩ ধরনের উপকরণ জব্দ করে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা। 

অধিদপ্তর জানায়, আজাহর কাছ থেকে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন মাদক সিন্ডিকেটের সদস্যদের সম্পর্কে তথ্য পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ঢাকার গোয়েন্দা দলের পরিদর্শক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে খিলক্ষেত থানায় নাইজেরিয়ার এই নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। 


বিভাগ : বাংলাদেশ