শিবপুরে নিখোঁজের আড়াই মাস পর কঙ্কাল উদ্ধার

০২ জানুয়ারি ২০১৯, ০৫:৩৬ পিএম | আপডেট: ২৪ মার্চ ২০১৯, ০৬:৩৭ পিএম


শিবপুরে নিখোঁজের আড়াই মাস পর কঙ্কাল উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নরসিংদীর শিবপুরে নিখোঁজের আড়াই মাস পর পারভেজ (২৮) নামে একজনের কংকাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। পারভেজ পলাশ উপজেলার গুচ্ছ (আদর্শ) গ্রামের তাজু মিয়ার ছেলে।
বুধবার (২ জানুয়ারি) সকালে পলাশ উপজেলার দড়িচর গ্রামের একটি আখক্ষেত থেকে কঙ্কালটি উদ্ধার করা হয়। পরিবারের লোকজন কঙ্কালের পাশে থাকা জামাকাপড় দেখে কঙ্কালটি পারভেজের বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন।
শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ জানায়, পারভেজ নিখোঁজ হওয়ার এক মাসপর গত বছরের ৭ অক্টোবর শিবপুর মডেল থানায় একটি অপহরণ মামলা হয়। পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মমর্তা উপ-পরিদর্শক মনির হোসেন ডাকাত সুমন (বাবু), রাসেল ও সেলিমকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর সুমন ওরফে বাবুর দেয়া তথ্যমতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার আমলাপাড়া থেকে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার নোয়াকান্দা গ্রামের মৃত আক্কাস আলীর ছেলে কুখ্যাত ডাকাত জালালকে আটক করে পুলিশ। পরে জালালের দেয়া তথ্যমতে (২ জানুয়ারি) পলাশ উপজেলার দড়িচর গ্রামের একটি আখক্ষেতের ভিতর থেকে একটি কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়। কঙ্কালের পাশে থাকা জামাকাপড় দেখে কঙ্কালটি পারভেজের বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছেন পারভেজের পারিবারের লোকজন। কঙ্কালটি সনাক্ত করতে ডিএনএ পরিক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, নিহত পারভেজসহ সুমন, রাসেল, সেলিম, জালাল, বদু ও অন্যান্য ১০/১২জন একটি সংঘবদ্ধ আন্ত:জেলা ডাকাত দল। ডাকাতির মালামাল ভাগাভাগি নিয়ে সহযোগীদের সঙ্গে পারভেজের দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হলে পারভেজকে অপহরণ করে হত্যা করা হয়। হত্যার সঙ্গে জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।



এই বিভাগের আরও