নরসিংদীতে অবৈধ ইটভাটায় মোবাইল কোর্টের অভিযান, জরিমানা আদায়

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:৪৭ পিএম | আপডেট: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৪:৪৪ এএম


নরসিংদীতে অবৈধ ইটভাটায় মোবাইল কোর্টের অভিযান, জরিমানা আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

নরসিংদীতে অবৈধভাবে পরিচালনা করার অভিযোগে তিন ইটভাটাকে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। বুধবার সকাল থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত জেলার সদর ও রায়পুরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব জরিমানা করে অধিদপ্তরের মনিটরিং এ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট উইংয়ের ভ্রাম্যমান আদালত। পাশাপাশি এইসব ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট উইংয়ের ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০), ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) অধ্যাদেশ, ২০১৮ অনুযায়ী অবৈধভাবে ইটভাটা পরিচালনা করার অপরাধে নরসিংদীর সদর উপজেলার মাধবদীর মেসার্স এসটিসি ব্রিকসকে ৬ লাখ টাকা, মেসার্স অনামী ব্রিকসকে ৯ লাখ টাকা এবং রায়পুরা উপজেলার মেসার্স এমজিবি ব্রিকসকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। এসময় ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় ভাটা ৩ টি পানি দিয়ে আগুন নিভিয়ে উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতটি পরিচালনা করেন অধিদপ্তরের মনিটরিং এ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট উইংয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কাজী তামজীদ আহমেদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন, পরিবেশ অধিদপ্তর নরসিংদী জেলা কার্যালয়ের দায়িতপ্রাপ্ত উপপরিচালক মো. আখতারুজ্জামান টুকু, পরিবেশ অধিদপ্তরের সদর দপ্তরের পরিদর্শক মির্জা আসাদুল কিবরীয়া ও নমুনা সংগ্রহকারী রাসুল ইয়া বারী কামাল।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজীদ আহমেদ জানান, নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে জনবসতি ও কৃষি জমির পাশে খোলা জায়গায় ইটের ভাটার ফলে মারাত্মক ক্ষতি করছে পরিবেশের। এছাড়া এসব ভাটার মাটি ফসলি জমি থেকে সংগ্রহ করার কারণে আবাদী জমির উর্বরতা নষ্ট হচ্ছে। বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০), পরিবেশ সংরক্ষণ বিধিমালা, ১৯৯৭ (সংশোধিত ২০০৭) এবং ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩ অনুযায়ী অবৈধভাবে পরিচালিত ইটভাটার বিরুদ্ধে প্রত্যেক জেলায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার মাধ্যমে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা প্রদান করা হবে। অবৈধভাবে পরিচালিত ইটভাটার বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তরের এনফোর্সমেন্টের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।